WiMAX কি? WiMAX এর সুবিধা ও অসুবিধা কি কি?

আমরা সবাই কম বেশি ইন্টারনেট ব্যবহার করি। ইন্টরনেট ব্যবহার করি জন্যই আজ এই আর্টিকেলটি দেখতে ও পড়তে পারতেছি। ইন্টারনেট ব্যবহারের জন্য আমরা কয়েক ধরনের মাধ্যম বা প্রযুক্তি ব্যবহার করি। মোবাইল ডাটা, WiFi, কেবল নেটওয়ার্ক ইত্যাদি অনেক জন্য প্রিয় মাধ্যম। এছাড়াও আরও একটি জনপ্রিয় মাধ্যম হল WiMAX. আজ আমরা জানব WiMAX কি এবং WiMAX এর সুবিধা ও অসুবিধা গুলো কি কি? তো চলুন শুরু করা যাক।

WiMAX কি?
WiMAX, যার পূর্ণরূপ হল Worldwide Interoperability for Microwave Access. WiMAX হল এমন এক ধরনের ইন্টারনেট টেকনোলজি যা অধিক দূরত্ব পর্যন্ত তারহীন ইন্টারনেট সেবা দিতে সক্ষম। সহজ কথায় WiMAX হল একটি তার বিহীন ব্রডব্যান্ড প্রযুক্তি। WiMAX ক্যবল নেটওয়ার্ক ও মোবাইল ডাটার বিকল্প হিসেবে ব্যবহার কার হয়। কিন্তু তুলনামূলক WiMAX এ খরচ বেশি হওয়ায় এটির ব্যবহার খুব বেশি লক্ষ্য করা যায় না। এটি LET তথা 4G টেকনোলজি ব্যবহার করে বলে সাধারন ক্যবল নেটওয়ার্ক ও মোবাইল ডাটার চাইতে দ্রুত গতির ইন্টারনেট সুবিধা পাওয়া যায়।

WiMAX সংযোগ মূলত দুই ভাগে বিভক্ত। একটি হল বেস স্টেশন, যা WiMAX প্রভাউডাররা নেটওয়ার্ক কাভারেজ বৃদ্ধি করার জন্য ব্যবহার করে ও সেবা প্রদান করে। আর অপর টি হল নেটওয়ার্ক রিসিভার, যা গ্রাহকের ডিভাইসে লাগানো থাকে এবং WiMAX নেটওয়ার্ক কে ইউজারের ব্যবহার উপযোগী করে তোলে। WiMAX Forum নামের একটি প্রতিষ্ঠান ২০০১ সালে প্রথম WiMAX ডেভেলপমেন্ট করে এবং বর্তমানে তা তত্ত্বাবধান করে আসছে। এই প্রতিষ্ঠান WiMAX টেকনোজির সরঞ্জাম গুলো সার্টিফাই করে সর্বত্তম সেবা প্রদান করার লক্ষ্যে। WiMAX IEEE 802.16 প্রযুক্তি ব্যবহার করে অধিক নেটওয়ার্ক কাভারেজ দেওয়ার জন্য।

সুবিধা সমূহঃ
* LTE ব্যবহার করায় তুলনামূলক দ্রুত গতির ইন্টারনেট ব্যবহার কার যায়।
* তারহীন প্রযুক্তি হওয়ায় দুর্গম এলাকা গুলোতেও ইন্টারনেট সেবা দেওয়া সম্ভব।
* কেবল নেটওয়ার্কের মত নির্দিষ্ট সময় পর পর মেরামত করতে হয় না।
* একটি বেস স্টেশনের মাধ্যমে অধিক এলাকায় নেটওয়ার্ক কাভারেজ দেওয়া সম্ভব হয়। (প্রায় ৫০ কিঃমিঃ)
* দ্রুত গতির ইন্টারনেট হওয়ায় VOIP কল কোন ঝামেলা ও বাফারিং ছাড়াই কারা সম্ভব।

অসুবিধা সমূহঃ
* দূরত্ব বেশি হলে একাধিক বেজ স্টেশন স্থাপন করতে হয়।
* তারহীন প্রযুক্তি হওয়ায় খারাপ আবহাওয়া বা বেস স্টেশন থেকে গ্রাহকের দূরত্ব বেশি হলে ইন্টারনেটের স্পিড কমে যেতে পারে।
* একই WiMAX রিসিভার দিয়ে একাধিক জন ইন্টারনেট ব্যবহার করলে গতি কমে যায়।
* রক্ষণাবেক্ষণে তুলনামূলক খরচ বেশি।

তো আজকের মত এই পর্যন্তই। WiMAX নিয়ে কোন প্রশ্ন থাকলে নিচে কমেন্ট করে জানাতে পারেন। পরবর্তিতে দেখা হবে নতুন কোন পোস্টে, নতুন টপিক নিয়ে। সবাই ভাল থাকবেন সুস্থ থাকবেন, আর TechBartaBD এর সাথেই থাকবেন।
আল্লাহ্ হাফেজ।

Share This

You May Also Like

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *